Jilapi Making | জিলাপি বানানোর রেসিপি || how to prepare most tasty bengali sweet street food

প্রয়োজনীয় পরিমান ও উপকরনঃ (এটা ঘরে বানানোর রেশিও) – এক কেজি সাদা আটা (কিছুতেই ময়দা নয়) – ১০০ গ্রাম বেশন (বেশি দেয়া চলবে না) – পানি (তরল বানাতে যা লাগে, চিনির সিরাতেও পানি লাগে) – তেল (আপনি যে কাড়াইতে ভাঁজবেন সেই পরিমান, ডুবো তেলে ভাজতে হয়) – চিনির সিরা (পরিমান নিজেই নির্ধারন করে নিন, সিরা গাঢ় হতে হবে) উপরের পরিমান মত আটা এবং বেশন ভাল করে মিশিয়ে নিন। এবার পানি দিতে থাকুন এবং মিশাতে থাকুন। এই তরলটা এমন হবে যে, না শক্ত না বেশি তরল। যত ভাল করে মিশিয়ে এই তরল বানাবেন জিলাপী ততই জিলাপী মশৃন ও ভাল হবে। বড় চামচ দিয়ে তরল তুলে উপর থেকে নিচে ছাড়ুন, পরার গতিটা খুব কম নয় আবার বেশীও হবে না। (যদি কম বেশি হয় তবে পানি বা আটা দিয়ে ঠিক করে নেবেন) চিনির সিরাঃ এদিকে এভাবে কাই বানিয়ে রেখে অন্য একটা বড় হাড়িতে চিনির সিরা বানাতে হবে। পানিতে চিনি দিয়ে ভাল করে গুলে (মিশিয়ে) চুলায় গরম করতে হবে এবং বার বার নাড়িয়ে চিনির সিরা গাঢ় করে নিতে হবে। এই তরল সিরাও না বেশি গাঢ় না বেশী তরল হবে। সিরা হয়ে গেলে পাশে রেখে ঠান্ডা করে নিন। জিলাপী ভেজে পরে এই ঠান্ডা সিরায় রাখা হবে। কাই বা তরল হয়ে গেলে চুলায় তেল গরম করতে থাকুন। এবং বিশেষ ভাবে শক্ত কাপড়ের চার কোনার একটা কাপড় লাগে। এই চার কোনার কাপড় টার মাঝে একটা ফুটো আছে, এই ফুটোর সাইজেই জিলাপীর ডায়া হয়ে থাকে (মোটা চিকন জিলাপীর এটাই টেকনিক)। একটা বোলে এই কাপড়টা রেখে তাতে কাই ঢেলে নিতে হবে। এবং গরম তেলে এভাবে কাপড়ে রাখা কাই বা তরল ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে পেঁচিয়ে পেঁচিয়ে দিতে হবে। এটা একটা ওস্তাদি কাজ, অভিজ্ঞতায় হাতের নিপুণতা বাড়ে। জিলাপী বানাতে বড় চওড়া তেলের তাওয়া লাগে। যাতে করে তেলে ডুবিয়ে জিলাপী ভাজা যায় এবং তাপ সমভাবে সব জিলাপীতে লাগে। এবার এক পাশ হয়ে গেলে অন্য পাশ উল্টে দিন। কেমন রঙের ভাজা আপনি চান! নিজেই নির্ধারন করুন। ভাজা হয়ে গেলে মানে সোনালী রঙ এসে গেলে তুলে চিনির সিরায় রাখুন। উঠানোর সময় জোড়া লেগে থাকা জিলাপী গুলো সাইজ মত ভেঙ্গে দিন এবং সেভাবে তুলে নিন। এরপর গরম গরম পরিবেশন করুন।

No comments

Powered by Blogger.